তিতাস একটি নদীর নাম

ট্রানজিটের নামে ভারতকে করিডোর দিতে খরস্রোতা তিতাস নদীকে হত্যা করা হয়েছে নির্মম নিষ্ঠুরতায়। নদীর জল শুকিয়ে গেলেও প্রতিবাদের বান ডেকেছে সাধারণ মানুষের মনে। বিপন্ন দেশ, বিক্ষুব্ধ দেশবাসী, প্রতিবাদমুখর দেশী-বিদেশী ছাত্র সমাজ। ভারতের কৃততদাস সরকারের নিষ্ঠুরতায় শুকিয়ে যাওয়া তিতাসের জল ঢেউ তুলেছে সুদূর সুইডেনবাসী ছাত্রদের হৃদয়সিন্দুতেও। তারই সচিত্র প্রতিবেদন দেখুন নীচের ভিডিওচিত্রঃ

কি করে একটি নদীকে গলা টিপে হত্যা করা যায় তার জলজ্যান্ত উদাহরণ দেখতে পাবেন নীচের ভিডিওগুলিতে। এ তো কেবল একটি নদী হত্যা নয়, এ যেন এক গণহত্যা। অথচ কি আশ্চর্য, এমন বিপর্যয়ে পাশে নেই পরিবেশবাদীরা। ক্ষুধার তাড়নায় যারা অতিথি পাখি মারে, তাদের নিয়ে হৈ চৈ বাঁধাতে ওস্তাদ ওরা, দেশকে স্বনির্ভর হতে সাহায্য করছে যে জাহাজভাঙ্গা শিল্প, পরিবেশ বিপর্যয়ের নামে তা রুদ্ধ করে দিতে আন্দোলনে নামে ওরা অথচ আজ দেশের প্রয়োজনে সেসব জ্ঞানপাপীরা মুখে কুলুপ এঁটেছে। থাকুক ওরা মুখ বুজে, থাকুক ওরা পেঁচার মতো মুখ লুকিয়ে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ ষোল কোটি জনতার। আসুন তিতাস রক্ষায়, দেশরক্ষায় আমরাই গণপ্রতিরোধ গড়ে তুলি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.