শেয়ার কেলেঙ্কারীর প্রতিবাদে সিলেটে সকাল সন্ধ্যা হরতাল

ডিএসই ও সিএসই ক্যাসিনোয় ভয়াবহ দরপতনের ফলে  বন্ধ হয়ে গেছে  লেনদেন।  আজ দুপুর ১টায় লেনদেন শুরু হওয়ার ৫ মিনিটের মধ্যে সূচক ৬০০ পয়েন্ট পড়ে গেলে লেনদেন বন্ধ হয়ে যায় এবং আগামী রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ক্যাসিনো দু’টির সকল লেনদেন বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে সিকিউরিটিজ এন্ড একচেঞ্জ কমিশন। এদিকে শেয়ার কেলেঙ্কারীর প্রতিবাদে সিলেটে আগামী রোববার সকাল সন্ধ্যা হরতালের ডাক দিয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা।   জুয়ারীদের কারসাজী, সিকিউরিটিজ এন্ড একচেঞ্জ কমিশন ও বাংলাদেশ ব্যাংকের ইচ্ছাকৃত উদাসীনতা, গভর্নরের হঠকারী সিদ্ধান্ত এবং সর্বোপরি সরকারের সীমাহীন ব্যর্থতায় আস্থাহীনতায় আক্রান্ত শেয়ার বাজারের ধসের গতি স্লথ করতে নিত্য নতুন নিয়ম চালু করে চলেছে নীতি নির্ধারকেরা, যদিও তাতে পতনের গতি আরো দ্রুততর হচ্ছে বলেই মনে হয়।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী, সূচক ২২৫ পয়েন্ট বাড়লে বা কমলে লেনদেন স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্ধের সিদ্ধান্ত হয় এবং বাজারের নেতিবাচক পরিস্থিতি এড়াতে বুধবার পুঁজিবাজারে লেনদেন প্রথম স্বাভাবিক নিয়মের চেয়ে ২ ঘণ্টা পিছিয়ে দুপুর ১ টায় শুরু হয়। এ নিয়মে বুধবার ২ ঘণ্টা পর লেনদেন শুরু হলেও মাত্র দেড় ঘণ্টার মধ্যে সূচক পড়ে যায় ২৪৩ পয়েন্ট। একই ভাবে আজো লেনদেন শুরুর ৫ মিনিটের মধ্যেই সার্কিট ব্রেকারকে কাচকলা দেখিয়ে সূচক ৬০০ পয়েন্ট পড়ে যায়। এভাবেই হয়তো গদি থেকে সিটকে পড়ে যাবেন বয়সের ভারে ন্যুব্জ অর্থমন্ত্রী মহা পন্ডিত আবুল মা’ল মুহিত। তবে সে পতন কতটা বিভৎস হয় তা দেখার অপেক্ষায় দেশের সাধারণ জনগণ।

এদিকে নিজেদের দায় এড়াতে এসইসি ৬টি ব্রোকারেজ হাউজের কার্যক্রম ১ মাসের জন্য সাসপেন্ড করেছে। ব্রোকারেজ হাইজগুলো হচ্ছে আইআইডিএফসি সিকিউরিটিজ লিঃ, পিএফআই সিকিউরিটিজ লিঃ, এলায়েন্স সিকিউরিটিজ লিঃ এবং এসসিসি ব্যাংক, আল আরাফা ব্যাংক ও ঢাকা ব্যাংকের মার্চেন্ট শাখা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.