ডিজিটাল শোক সংবাদ!

একটি শোক সংবাদ! একটি শোক সংবাদ!! একটি শোক সংবাদ!!!
যুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধ তদন্তে করা সংস্থার প্রধান আবদুল মতীন পদত্যাগ করেছেন। ইন্নানিল্লাহে…. রাজেউন। পদত্যাগকালে তার দায়িত্বের মেয়াদ হয়েছিল একমাস বার দিন।
পদত্যাগকালে তিনি প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আলাউদ্দিন আহমেদ, আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য আমির হোসেন আমুসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার অকাল পদত্যাগে মিডিয়াজগত, রাজনৈতিক অংগনসহ সারাদেশে শোকের ছায়া নেমে আসে। তার পদত্যাগে মিডিয়াগুলো তাজা সংবাদের কারখানা হারালো, বুদ্ধিজীবীরা হারালেন টকশো’র তরতাজা ইস্যু।
কিছুদিন ধরেই তিনি সংবাদমাধ্যমে শিরোনাম হয়েছিলেন। একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধীদের ফাঁসির কাষ্ঠে ঝুলানোর জন্য যে তদন্ত কমিটি গঠিত হয় তাতে তিনি প্রধানের আসনটি অলংকৃত করেন। দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই দায়িত্বের প্রতি নিষ্ঠা, সততা ও আপোষহীনতার জন্য তড়িঘড়ি করে জামাত নেতাদের ফাৎসিতে ঝুলানোর প্রক্রিয়া বিলম্বিত হচ্ছিল। ফলে তাকে (স্বেচ্ছায়/সরকারের নির্দেশে) পদত্যাগ করতে হয়। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের জন্য ক্ষমতায় আসা আওয়ামী সরকারের পক্ষ থেকে তার প্রতি চাপ ছিল যে কোন প্রকারে জামায়াতের কিছু নেতাকে ফাঁসির কাষ্ঠে ঝুলিয়ে দেয়া। কিন্তু মহান মুক্তিযুদ্ধকে পুঁজিকরে টিকে থাকা কিছু রাজনৈতিক নেতার  চাওয়া পাওয়াকে মূল্য দিতে গিয়ে তদন্ত না করে কারো বিরুদ্ধে চার্জশীট গঠনকে তার কাছে অনৈতিক বলে মনে হওয়ায় তিনি এড়িয়ে যান। এদিকে দশ কোটি টাকার বাজেট থাকা সত্ত্বেও বেতন-ভাতার সুস্পষ্ট কোন বিধান না থাকা, মাত্র দুটো রুম তাদের জন্য বরাদ্ধ দেয়া, একটি পুরনো মাইক্রোবাস দিলেও তেল বরাদ্ধ না দেওয়াসহ বিভিন্ন কারনে তদন্ত কাজ জোরে শোরে চালানো সম্ভব হয় নি বলে তিনি দাবী করেন।
তার পদত্যাগে সরষের ভেতর থেকে ভুত তাড়ানো সম্ভব হলো। আশাকরা যাচ্ছে যে আওয়ামী সরকারের একান্ত অনুগত কোন আমলাকে এ আসনে বসিয়ে অচিরেই জামাতের নেতৃবৃন্দকে ফাঁসিতে ঝুলানো সম্ভব হবে।

6 Replies to “ডিজিটাল শোক সংবাদ!”

  1. আপনার শোক সমবাদএ আমরা আননদিত। দশ কোটি টাকা জলে জাইটেসিলো। এখন এর সঠিক বেবহার হবে।

    [উত্তর দিন]

    শাহরিয়ার উত্তর দিয়েছেন:

    সৎ লোকগুলো যে কেন এসব কমিটিতে যায়! সারাজীবন সৎ থেকে জীবনটা শেষ হয় অপবাদ দিয়ে।

    [উত্তর দিন]

  2. সরষের ভেতর থেকে ভুত তাড়ানো সম্ভব হলো । কিন্তু সরষের ভেতর কি ভুত এই একটাই ছিল? নাকি অারো অাছে ? যাক দেখি কোথাকার পানি কোথায় গড়ায় ।

    [উত্তর দিন]

  3. একটি শোক সংবাদ!!!
    যুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধ তদন্তে করা সংস্থার প্রধান আবদুল মতীন পদত্যাগ করেছেন। ইন্নানিল্লাহে…. রাজেউন। পদত্যাগকালে তার দায়িত্বের মেয়াদ হয়েছিল একমাস বার দিন।
    পদত্যাগকালে তিনি প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আলাউদ্দিন আহমেদ, আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য আমির হোসেন আমুসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। .হা হা হা হা ও চেয়ার থাইকা পৈরাগেলাম আমায় ধর .

    [উত্তর দিন]

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.