ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (EVM) : নির্বাচনের আগেই বিতর্কের সমাধান হোক

শেষ হলো চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন, ক্রমে ক্রমে শান্ত হয়ে আসছে সাইক্লোন, শীতল হয়ে আসছে নির্বাচনী উত্তাপ। ইতিহাস সৃষ্টিকরা এ নির্বাচনে সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিকটি ছিল প্রথম ব্যবহত  ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএম। এর মাধ্যমেই বাংলাদেশ পদার্পন করলো ইলেট্রনিক ভোটিং সিস্টেমে যা সারা বিশ্বে ই-ভোট নামেই পরিচিত। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় এর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ইনস্টিটিউটের (আইআইসিটি) চৌকষ গবেষকদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফসল এ ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন। তাদের ডিজাইনে মেশিনটি তৈরী করেছে পাই ল্যাবস বাংলাদেশ। বাংলাদেশের ভোটের ইতিহাসে তাদের এ অনন্য অবদান জাতি শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ রাখবে। Continue reading “ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (EVM) : নির্বাচনের আগেই বিতর্কের সমাধান হোক”

চসিক নির্বাচন: ফলাফল পাল্টে দেয়ার আশংকা

(সর্বশেষ সংবাদ: প্রায় লক্ষ ভোটে মনজুর বিজয়ী)

বহু প্রতীক্ষিত চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। অধিকাংশ কেন্দ্রের ভোট গণণাও শেষ হয়েছে, শুধু দেরী হচ্ছে ফল ঘোষণায়। গণমাধ্যমগুলো শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ হয়েছে বলে সংবাদ প্রকাশ করলেও আনারস প্রতীকের পক্ষ থেকে ২০টি কেন্দ্র থেকে এজেন্ট বের করে দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। মোটামুটি শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহন সম্পন্ন হলেও সময় যতই যাচ্ছে ততই ফলাফল সরকারের অনুকূলে ঘুরিয়ে দেয়ার আশংকা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ পর্যন্ত ৬৭৪টি ভোট কেন্দ্রের মাত্র ৪৯টির ফলাফল ঘোষিত হয়েছে। (রাত ১১:৩০ পর্যন্ত) Continue reading “চসিক নির্বাচন: ফলাফল পাল্টে দেয়ার আশংকা”

ভোটারদের আতঙ্কিত করতেই কি গ্রেফতার সাকা চৌধুরী?

সর্বশেষ সংবাদ : অবশেষে রাত সোয়া ১২টায় আবার মুক্ত সাকা।
হঠাৎ করেই গ্রেফতার হলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও জাতীয় সংসদ সদস্য সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ওরফে সাকা চৌধুরী। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন শুরু হবে আর অল্প কয়েক ঘন্টা পরেই অথচ এমন একটি নাজুক মুহুর্তে বাকলিয়া থানা পুলিশ আটক করে তাকে। বাকলিয়ার মান্নান সওদাগরের বাড়িতে দাওয়াত খেয়ে গুডস হিলের নিজ বাসায় যাওয়ার পথে বিকেল সোয়া পাঁচটায় চট্টগ্রামের বাকলিয়া থানার কালামিয়া বাজার এলাকায় সাকাচৌধুরীর গাড়ীর গতিরোধ করে আটক করা হয়। পুলিশের অভিযোগ সাকা চৌধুরী নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে গাড়ি বহর নিয়ে ঘোরাঘুরি করেছেন, যদিও তিনি তার গাড়ীর সাথে চলা সব গাড়ী তার নয় বলে দাবী করেন। উল্লেখ্য পুলিশ ৪টি গাড়ী থামানোর চেষ্টাকালে ২টি চলে যেতে সক্ষম হয়। অথচ নির্বাচনী আচরণবিধি লংঘনের কথা বলা হলেও এখন গ্রেফতার দেখানো হচ্ছে নির্বাচন কমিশনের ভিন্ন মামলায়। তার গ্রেফতারের খরর দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে বাকলিয়া থানায় বিএনপির সাংসদ জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন, চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের নেতাবৃন্দসহ হাজার হাজার নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষ ভিড় করে। ৩ ঘণ্টা ১০ মিনিট পর রাত ৮টা ২৫ মিনিটে সাকা চৌধুরীকে এবকার ছেড়ে দেয়া হলেও আবার রাত ৮টা ৩৫ মিনিটে তাকে আটক করা হয়। Continue reading “ভোটারদের আতঙ্কিত করতেই কি গ্রেফতার সাকা চৌধুরী?”

দেশনেত্রী! আরেকবার ভাবুন!!

বিশাল জনসমুদ্র। হাজার হাজার, লাখো জনতা উদগ্রীব হয়ে অপেক্ষায়। উন্মাতাল জনসমুদ্র প্রতীক্ষায় সেই কাঙ্খিত ঘোষণার। দেশনেত্রী মঞ্চে উঠে ঘোষণা করবেন সেই বহুপ্রতীক্ষিত রায়। সকাল থেকে জন মানুষের ঢল, হাজারো অলি-গলি রাজপথের জনস্রোত মিশেছে পল্টনের জনসমুদ্র মোহনায়। আজ যে তাদের মহা মুক্তির দিন।

অনেক সয়েছে মানুষ, অত্যাচার নির্যাতন সয়ে সয়ে ধৈর্যের শেষ সীমায় আজ তারা। নির্বাচনপূর্ব জনসভায় অলিক স্বপ্নে বিভোর করে প্রতারিত করেছেন শেখ হাসিনা। দশটাকা সের চাল খাওয়ানোর যে ওয়াদা আওয়ামী লীগ জনসম্মুখে করেছিল, আঁতাতের নির্বাচনে মহাবিজয়ের পরে বেমালুম অস্বীকার করে সেসব কথা। ঘরে ঘরে চাকুরী দেয়ার ওয়াদা করেছিল যারা প্রকাশ্য জনসমুদ্রে, নির্বাচনী বৈতরণী পেরোতেই অস্বীকার করে বসে সেসব কথা। বিনামূল্যে সার দেয়ার কথা বলেছিলেন তিনি, সুজলা সুফলা বাংলাদেশের নরম কাদামাটির মতো কোমল কৃষক হৃদয়ে আচড় কেটেছিল সেসব প্রতিশ্রুতি, কিন্তু কথা রাখেননি শেখ হাসিনা। বিনামূল্যে সার নয় বরং সার কারখানাই বন্ধ করে দিচ্ছেন আজ বিদ্যুত উৎপাদনের অযুহাতে। Continue reading “দেশনেত্রী! আরেকবার ভাবুন!!”

ছাত্রীদের মিছিল চলেছে মৃত্যুর ওপারে

স্কুল ড্রেস পরে কলকল ছলছল নদীর মতো ছুটে চলে ছাত্রীদের মিছিল। সাদা পোষাকে মেয়েগুলো যেন একঝাঁক শ্বেতকপত। সকালের সবচেয়ে সুখকর দৃশ্যগুলোর অন্যতম এ দৃশ্যটি। তবু মাঝে মাঝে নদীগুলো গতি হারায় । রাস্তার মোড়ে মোড়ে, অলিতে গলিতে, পান বিড়ির দোকানের পাশে আড়ালে আবডালে ওত পেতে থাকা নেড়ী কুকুরগুলোর ভয়ে পায়রাগুলো তীর তীর করে কাপে। কুকুরগুলোর ভয়ে ছাত্রীদের স্কুল কলেজে যাওয়াই দায়, ছাত্রীদের দেখলেই ওরা ঘেউ ঘেউ শব্দে শীষ কাঁটে,  গালবেয়ে বিষাক্ত কষ ঝড়ায়,  দু’য়েকটা কুকুর হায়েনার মতো হামলে পরে কিশোরীদের গায়ে। Continue reading “ছাত্রীদের মিছিল চলেছে মৃত্যুর ওপারে”

জামাত, ইসলাম, অর্থনীতি; কোনটা টার্গেট?

ড. আবুল বারাকাতের একটি অলিক গবেষণার সূত্র ধরে মাঝে মাঝেই বাংলাদেশে ইসলাম বিরোধী শক্তি হৈ চৈ শুরু করে। আজও আইন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বারাকাতের তত্ত্বের উদ্ধৃতি টেনে দেশ থেকে জামায়াতের অর্থায়নকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিয়ন্ত্রণে আনা হবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন। অথচ বাংলাদেশের অর্থনীতিতে যে সকল প্রতিষ্ঠান দূর্ণীতিমুক্তভাবে পরিচালিত হয়ে গণমানুষের  প্রাণের প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে তার সবগুলো প্রতিষ্ঠানকেই জামায়াতের অর্থায়নকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে আবুল বাকারাত চিহ্নিত করেছেন। তার হিসেব মতে বাংলাদেশের বেশ কিছু আর্থিক প্রতিষ্ঠান (ব্যাংক, বীমা, লিজিং কোম্পানী), ৪৫০ টি এনজিও, ফার্মাসিউটিক্যালস ইন্ডাস্ট্রিজ, স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠান, ডায়গনষ্টিক সেন্টার, ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান (খুচরা ও পাইকারী ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, ডিপার্টমেন্টাল স্টোর), শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (স্কুল, কলেজ, মাদরাসা, বিশ্ববিদ্যালয়, কোচিং সেন্টার), যোগাযোগ ব্যবস্থা (বাস, ট্রাক, লঞ্চ, স্টীমার, জাহাজ, গাড়ী, সিএনজি রিক্সা ইত্যাদি), রিয়েল স্টেট ব্যবসা (ল্যান্ড, বিল্ডিং), নিউজ মিডিয়া, আইটি, বই, প্রকাশনী, ইত্যাদি ইত্যাদি জামায়াত নিয়ন্ত্রিত এবং জামাতের অর্থের যোগানদাতা। অর্থাৎ আবুল বারাকাত বাংলাদেশের অর্থনীতির চালিকাশক্তির একটিও বাদ দিতে ভুলে যান নি। এ সকগুলোই জামাত নিয়ন্ত্রিত এবং এখান থেকে লাভের বিশাল একটি অংশ অর্থাৎ বারাকাতের হিসেব মতে দেশীয় উন্নয়ন বাজেটের ১২% এর সমান অর্থ জামাতের তহবিলে জমা হয়। Continue reading “জামাত, ইসলাম, অর্থনীতি; কোনটা টার্গেট?”

ছাত্রলীগের গান

কোন ছেলে যখন পরীক্ষার হলে খাতা কলম নিয়ে প্রশ্নের জবাব দেয়ার চেষ্টা চালায় তবে সে যে একজন ছাত্র নিঃসন্দেহে তা ধরে নেয়া যায়। আর যে ছেলেরা পরীক্ষার্থীদের হল থেকে বের করে হত্যা করতে চায়, তারা কি? নিশ্চয় তারা ছাত্র নয়, ওরা সন্ত্রাসী। কিন্তু যে ছেলেরা হলে ঢুকে শিক্ষককে লাঞ্ছিত করে সকল পরীক্ষার্থীর সামনেই তাকে কি নামে ডাকা যায়? সন্ত্রাসী? না, বরং তাকে ছাত্রলীগ বলে ডাকাই ভালো। ছাত্রলীগ এমনই বহুমূখী গুণের সমষ্টি যে, যে কোন অপকর্মের জন্য যদি বলা হয় অমুক ছেলেটি ছাত্রলীগ তবে তার সব গুণগানই করা হয়।  অর্থাৎ বাংলা ব্যকরণের ভাষায় “এমন কোন অপকর্ম নাই যাহা ছেলেটি দ্বারা সাধিত হয় নাই” একে এক কথায় প্রকাশ করা যায় “ছেলেটি ছাত্রলীগ” বলে। Continue reading “ছাত্রলীগের গান”

ছাত্রলীগ মানেই চরিত্রহীন!!!

ছাত্রীদের শ্লীলতাহানি ও উত্যক্তকারী হিসেবে ছাত্রলীগ সম্পর্কে একটা অভিযোগ বরাবরই ছিল। সেঞ্চুরিয়ার মানিক ছাত্রলীগের সে অশুভ চরিত্রটিকে সবার সামনে দিবালোকের ন্যায় স্পষ্ট করে তোলে। ধর্ষণে সেঞ্চুরী করে ছাত্রলীগ নেতা মানিক যে কলঙ্কের ইতিহাস রচনা করেছিল সে ইতিহাসের পঙ্কিল পথে প্রতিনিয়ত ছুটে চলছে ছাত্রলীগ। আগে শুধু ছাত্রলীগের ছাত্ররাই এ সব কাজে সিদ্ধহস্ত ছিল, ইদানিং ছাত্রলীগের ছাত্রীরা ছাত্রদের চেয়েও কয়েক ধাপ এগিয়ে বেশ্যাবৃত্তিকে দলীয় কর্মসূচীতে পরিণত করেছে। পত্রিকার রিপোর্ট থেকে এ কথা বেরিয়ে এসেছে যে ছাত্রলীগের ছাত্রী নেত্রীদের কাজ এখন আওয়ামী লীগ নেতাদের ও মন্ত্রীদের বাসায় ছাত্রীদেরকে সরবরাহ করা। এমনকি নিরীহ ছাত্রীদেরকেও বাধ্য করা হচ্ছে মন্ত্রীদের বাসায় গিয়ে তাদের মনোরঞ্জনে। বিকৃত যৌনাচারে ছাত্রলীগ একের পর এক যে নোংরা ইতিহাস রচনা করছে তাতে মনে হয় বিকৃত যৌনাচারই ছাত্রলীগের মূল পরিচয়। Continue reading “ছাত্রলীগ মানেই চরিত্রহীন!!!”

Govt. driven terrorism ravishing human rights in Bangladesh

Law and Order in Bangladesh is breaking down as Government driven terrorism ravishing human rights here.  State minister for Home Affairs Shanmsul Haque Tuku ordered law enforcing agencies especially RAB (elite force), Police to launch combing operation to kick out activist of Bangladesh Islami Chhatrshibir on Thursday, 11 February 2010, after a special meeting with heads of the law enforcement agencies at the home ministry with Sahara Khatun, Home Minister in the Chair.  Hundreds of Jamaat and Shibir activist along with passerby and general students were trapped to Jail. Hundreds of messes of Shibir near universities and colleges around the country were netted to arrest students and gunned down to death a Shibir leader in Chapainawabganj district by the police.  Chhatra League activist also flamed computers, books etc in various universities. Continue reading “Govt. driven terrorism ravishing human rights in Bangladesh”

দিন বদলে রাত্রি নামে

চারিদিকে পরিবর্তনের হাওয়া। সব কিছু ক্যামন বদলে যায় দিনে দিনে। যে ছেলেটি পথে ঘাটে লম্বা করে সালাম দিত, তাকে দেখি বুক টান করে হাটে সিগারেট ফুঁকে ফুঁকে।

আগে সুবেহসাদেকের ঘোষণা দিত গৃহপালিত মোরগের দল। ইদানিং বিদ্যুতের আলোতে বিভ্রান্ত কোন কোন মোরগ অসময়েও ডেকে ওঠে, ভোর হওয়ার সুসংবাদ দেয়, যদিও অমন ভোরের অপেক্ষায় হয়তো ওত পেতে থাকে চোরছ্যাচরের দল। আবার কিছু কিছু মোরগতো  পুরোপুরি বিভ্রান্ত। দেহঘড়ির কাটা আগুপিছু করে ডাকাডাকির সময়ও পাল্টিয়ে ফেলেছে। আমাদের এ পাড়ার এক মোরগ নিয়ম করে প্রতি রাত সাড়ে এগারোটায় ডেকে ডেকে সকালের সুসংবাদ দেয়, ভারী অবাক ব্যাপার। Continue reading “দিন বদলে রাত্রি নামে”