আওয়ামী কূটকৌশলে হেরে গেলো আলেম সমাজ!

দাবী-দাওয়া পূরণের আশ্বাসে ২৬ ডিসেম্বরের হরতাল স্থগিত

জাতীয় শিক্ষানীতি সংশোধনের দাবিতে সম্মিলিত ওলামা পরিষদের ডাকা ২৬ ডিসেম্বরের হরতাল স্থগিত করা হয়েছে। খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের বড়দিন ভালমতো উদযাপনের স্বার্থে এবং ওলামা মাশায়েখদের দাবি-দাওয়া সরকারের বিবেচনার আশ্বাসের প্রেক্ষিতে হরতাল ২৫ জানুয়ারী পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে বলে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য আব্দুল লতিফ নেজামি এ ঘোষণা দেন। তবে সরকার যদি তাদের প্রতিশ্রুতি রক্ষা না করে তবে আবারও হরতাল দেয়ার ঘোষণা দেয়া হবে। তবে ভবিষ্যতে কি হবে তা কারো জানা না থাকলেও এবারের মতো রাজনীতির কূটকৌশলে আওয়ামী লীগ যে আরেকবার সাধারণ মানুষকে বোকা বানালো তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। সম্মিলিত ওলামা মাশায়েখ পরিষদ যতই বলুক না যে সরকার তাদের দাবী দাওয়া মেনে নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন কিন্তু দুপুর গড়ানোর আগেই কিন্তু সরকারের স্পষ্টভাষী প্রভাবশালী আইনমন্ত্রী (যিনি প্রধানমন্ত্রীর ছেলেমানুষি বক্তব্য নিয়েও তামাশা করতে ছাড়েন না) সমাবেশে বলেই ফেললেন, ওলামাদের শুভবুদ্ধির উদয় হওয়ায় হরতাল প্রত্যাহার করেছেন, হরতালটি যে বিনা কারণে (!) তা উল্লেখ করতেও ছাড়েন নি। হরতাল ডাকায় যে আলেমদের একাত্তরে পাকিস্তানী হায়েনাদের চেয়েও খারাপ বলে গালি দিলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী, গালি দিলেন মহিউদ্দিন খান আলমগীরসহ আরো নেতৃবৃন্দ, সবকিছু ভুলে গিয়ে, ইসলামের কথা ভুলে গিয়ে, ইসলামী শিক্ষা ও সংস্কৃতি রক্ষার কথা ভুলে গিয়ে, বড়দিনের পরের দিন হরতাল করলে খ্রিস্টানদের কষ্ট হবে এমন অদ্ভুত যুক্তিতে, এইচটি ইমাম  ও নানকের প্রতিশ্রুতিতে আলেম সমাজ এভাবে বিভ্রান্ত হবেন, তা জাতিকে পুরোপুরি হতাশ করেছে।

Continue reading “আওয়ামী কূটকৌশলে হেরে গেলো আলেম সমাজ!”