মৃত্যু ভয়ে আত্মহত্যা!

বিকাল ৩টার একটা শিক্ষা বৈঠকে যোগদানের জন্য বাসা থেকে বের হয়েছি। কোন বৈঠকে যাওয়ার আগে মুহুর্তের জন্য দ্বিধা জাগে, বিপদ হবে না তো? পুলিশী হয়রানীর শিকার হবো না তো? অবশ্য তা নিতান্তই ক্ষণিকের চিন্তা মাত্র, মাথা থেকে এমন ফালতু চিন্তা ঝেটিয়ে বিদেয় করতে মোটেই বেগ পেতে হয় না বরং এর পরে প্রতিটি পদক্ষেপ পূর্ববর্তী পদক্ষেপের তুলনায় ক্রমাগত দৃঢ় থেকে দৃঢ়তর হতে থাকে।

বাসার গলি থেকে প্রধান সড়কে উঠতেই এক হাত পাশেই আস্ত একটা ইট পড়ে টুকরো টুকরো হয়ে গেল। আমার টার্গেটও ছিল ঠিক ঐ যায়গায় উঠে রাস্তার পাশের ভবনগুলোর ঝুল বারান্দার ছায়ায় ছায়ায় পথ চলা। ঘটনার আকস্মিকতায় আমি চমকে উঠি। একটু নিরাপদ দূরত্বে সড়ে এসে উপড়ের দিকে তাকাতেই আসল রহস্য উন্মোচিত হয়। আড়াই/তিন বছরের একটা শিশু চারতলার ব্যালকনিতে দাড়িয়ে আস্ত ইট একে একে ৪টি রাস্তায় ছুড়ে ফেলল। অবুঝ শিশু কি করে বুঝবে ওর নিতান্ত আনন্দের এ খেলা পথচারীদের জীবনের সকল জীবনখেলার অবসান ঘটাতে পারে। Continue reading “মৃত্যু ভয়ে আত্মহত্যা!”