ক্যামনে বইবো বল শোকের পাহাড়

বাতাসে লাশের গন্ধ। চারিদিকে শোকের মাতম। স্বজন হারানো ব্যাথায় বাকরুদ্ধ দেশ। যে দিকে দৃষ্টি যায় শুধুই লাশের মিছিল। মিছিল চলেছে আজিমপুর গোরস্থান পানে। গোরখোদকের দল খুড়ে চলেছে সারি সারি শতাধিক কবর। এ খোড়াখুড়ির যেন শেষ , এ কষ্টের বুঝি কোন সীমা নেই।
স্বজন হারিয়ে উদ্ভ্রান্ত যুবক বোবা দৃষ্টিতে তাকায় লাশের দিকে। দু’পা ছড়িয়ে আকুল হয়ে কেঁদে কেঁদে ঘুমিয়ে থাকা মায়ের মাথা টেনে নেয় কোলে, আরেক কোল জুড়ে স্বর্গের পরী ছোট্ট খুকি। কাকে রেখে কার দিকে তাকাবে সে? এক হাতে পৃথিবী আর এক হাতে বেহেস্ত পেলেও যে মায়ের মুখের হাসি হারাতে রাজি নয় সে, সে আজ কি করে বিদায় দেবে মাকে সীমারের মতো? যে সন্তানের মুখের দিকে চেয়ে চেয়ে শতাব্দীর পর শতাব্দী কাটিয়ে দেয়া যায়, ভুলে থাকা যায় জাগতিক যত দু:খ, কষ্ট, যন্ত্রণা, সে সন্তানের ‘বাবা’ ‘বাবা’ ডাকগুলো কি করে আজ মাটিচাপা দেবে সে? Continue reading “ক্যামনে বইবো বল শোকের পাহাড়”