ভ্রুণহত্যা বন্ধ কর

প্রতিটি মানুষের মনের অন্ধকারে ঘাপটি মেরে থাকে এক একটা ভয়ংকর জানোয়ার। সর্বদা সে সুযোগের সন্ধানে থাকে দন্ত নখর বিছিয়ে, শিকার দেখে মুখের লালা ঝরায়। আর মোক্ষম সুযোগটা হাতে এসে গেলে জানোয়ারটা তার বিভৎস রূপ নিয়ে ঝাঁপিয়ে পরে শিকারের উপর, ছিন্ন বিচ্ছিন্ন করে চেটেপুটে খেয়ে তৃপ্তির ঢেকুর তোলে। তারপর আবার অন্ধকারে ঘাপটি মারা, নতুন কোন সুযোগের অপেক্ষা। Continue reading “ভ্রুণহত্যা বন্ধ কর”

মাতৃত্ব

মুরগী পালনের প্রতি মায়ের আগ্রহের শেষ নেই। তার সাথে সাথে কয়েকটি মুরগী ঘুরঘুর করবে, নিজের হাতে খাবার খাওয়াবেন এইটুকুই তার চাওয়া। এনিয়ে বাসায় রাগারাগিরও শেষ নেই। বাবা আবার মুরগীর উৎপাত একদম সইতে পারেন না।

মুরগী ডিম পাড়া শুরু করলেই আমরা সাবার করে ফেলতাম। মুরগী আবার ডিম গুনতে পারে না। তবে অন্তত একটা ডিম না থাকলে কিছুতেই ডিম পাড়তে চায় না। তাই সবসময় মাটির পাত্রে কিছু খরকুটো বিছিয়ে তার উপর একটা ডিম রেখে দিতাম, ওতেই মুরগীটা আস্বস্ত হয়, ডিম পাড়ে। Continue reading “মাতৃত্ব”