মত প্রকাশে শালীনতা

কেউ যখন কোন ভালো কাজের সংকল্প করে তবে তার নামে একটি নেকি লেখা হয়, খারাপ কোন চিন্তা করলে কোন পাপ লেখা হয় না। বায়তুল্লাহর বিষয়টি অবশ্য ভিন্ন, সেখানে খারাপ চিন্তার জন্যও মাশুল গুণতে হয়। আল্লাহ মানুষকে পাপের শাস্তি দিয়ে জাহান্নামী করতে চান না বরং তিনি মানুষকে জান্নাত দেয়ার ওয়াসিলা খোঁজেন। তাই তিনি মানুষের অন্তরের খারাপ দিক গুলোর জন্য কোন শাস্তির বিধান রাখেন নি, রেখেছেন নেক নিয়তের জন্য সওয়াবের বিধান।

মানুষ আশরাফুল মাখলুকাত, সৃষ্টির সেরা। মানুষের রয়েছে ভালো মন্দ যাচাই বাছাইয়ের জ্ঞান, রয়েছে ভালো কিংবা মন্দ পথ বেঁছে নেয়ার স্বাধীনতা, রয়েছে জান্নাত বা জাহান্নামে তার যায়গা করে নেয়ার অধিকার। মানুষের আছে মন, আর মনের কারনেই সে মানুষ, পশু নয়। তবু মানুষ মনের মাঝে বয়ে বেড়ায় হিংস্র পাশবিকতা। মাঝে মাঝে পাশবিকতা মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে, মানবতাকে পদদলিত করে, মনের মাঝে ঘাপটি মারা পশুটা  পিশাচের রূপ ধরে হামলে পরে। Continue reading “মত প্রকাশে শালীনতা”