বসে আছি চরমতম শাস্তির অপেক্ষায় …

বাংলাদেশ ব্যাংকের ঠিক পেছনেই একটা ঝিল। ঝিল না বলে নর্দমা বলাই ভালো। তবে এখনো নর্দমাটিতে নৌকা চলে। অফিসগামী স্বল্প আয়ের চাকুরীজীবীরা নতুন জামাইয়ের মতো নাকে রুমাল চেপে দিনে দু’বার খেয়া পেরোয়। ঢাকা শহরের একেবারে প্রাণকেন্দ্রে আজো খেয়াঘাটের অস্তিত্ব রয়েছে তা না দেখে বিশ্বাস করাই কঠিন। অথচ এ নর্দমার খেয়াঘাটেও বাঁধা পরে আছে বেশ কিছু মাঝি পরিবারের হাসি কান্না আর ভালোবাসার প্রাণ। Continue reading “বসে আছি চরমতম শাস্তির অপেক্ষায় …”

অচেনা কোকিল

মাওয়া লঞ্চঘাটে এসেই কাওড়াকান্দীগামী ছোট লঞ্চটা পেয়ে গেলাম। লঞ্চে উঠেই সবার মতোই একটু এদিক ওদিক ঘুরে দেখতে আমারও ভালো লাগে। প্রথমেই লঞ্চের নীচতলায় ঢুকে গেলাম। সকাল বেলা বাসা থেকে রওয়ানা করে এ পর্যন্ত এসেও এককাপ চা খাওয়া হয় নি, তাই লঞ্চের একেবারে পেছন দিকে টি স্টলটার কাছে চলে এলাম। কিন্তু অভাগা যে দিকে চায়, সাগর শুকিয়ে যায় বলে যে প্রবাদটা প্রচলিত আছে তা সত্য প্রমাণ করতেই বোধহয় চা ওয়ালা তখনো স্টোভে আগুন জ্বালেনি। Continue reading “অচেনা কোকিল”