বেশ্যার সামাজিকায়ন

রাষ্ট্র বড়, নাকি সমাজ বড় এ নিয়ে বিস্তর গবেষণা হতে পারে, তবে সমাজই মানবজাতির সত্যিকারের অবস্থানকে তুলে ধরে তা বোধ হয় কেউই অস্বীকার করবেন না। সমাজের প্রচলিত প্রথf, রীতি-নীতি, বিশ্বাস ধীরে ধীরে আইনে পরিণত হয়, আবার আইন করে সমাজের কোন কোন প্রথাকে বিলুপ্ত করা হয়। তবে যে রাষ্ট্রের নীতি সমাজের প্রচলিত রীতি নীতি বিরুদ্ধ সে রাষ্ট্রে আর যা-ই হোক, শান্তি আসতে পারে না, স্বস্তি থাকতে পারে না। তাই রাষ্ট্র যখন কোন নতুন কিছু নাগরিকদের উপর চাপিয়ে দিতে চায় তখন তা সমাজের মানুষের মাঝে আগে ব্যাপকভাবে প্রচারণা চালানো হয় যাতে সমাজ তাকে সহজে গ্রহণ করে। সমাজের কাছে গ্রহণীয় না হলে কোন আইনই সুষ্ঠুভাবে প্রয়োগ হতে পারে না, আর যদি বা বাস্তবায়িত হয় তার জন্য যথেষ্ট কাঠখড় পোড়াতে হয়, সমাজটাকে বদলে দিতে হয়। তবে সমাজটাকে রাতারাতি বদলানো যায় না, একটু একটু করে দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টায় তা হয়তো বদলানো যায়, তবে সমাজ ইচ্ছে করলে এর চেয়ে সহজে রাষ্ট্রের প্রশাসনযন্ত্রকে বদলাতে পারে। Continue reading “বেশ্যার সামাজিকায়ন”