সেনা অভ্যুত্থান : ব্যর্থ নাকি সফল!

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সেনা সদরের পরিচালক (পিএস) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাসুদ রাজ্জাক গতকাল সাংবাদিক সম্মেলনে বলেছেন, সেনাবাহিনীর কর্মরত ও অবসরপ্রাপ্ত কতিপয় ‘ধর্মান্ধ কর্মকর্তার’ সরকার উত্খাতের একটি প্রচেষ্টা নস্যাৎ করে দেয়া হয়েছে। টেলিভিশনে ব্রিগেডিয়ার জেনারেলের লিখিত বক্তব্য শোনার সময় মনে হলো আমার কান আস্তে আস্তে দীর্ঘ হয়ে যাচ্ছে, মুখমন্ডল চোঙার মতো সুচালো হয়ে যাচ্ছে, মোটকথা আমি নিজেকে আস্ত গাধা বলে অনুভব করলাম। বাকরুদ্ধ এই আমি কয়েকট মিনিট কোন কথা বলতে সাহসী হলাম না, ভয় হলো কথা বললেই হয়তো মুখ থেকে কথার বদলে গাধার চিৎকার বেরিয়ে পড়বে। হয়তো সচেতন দেশবাসীরও আমার মতো একই অনুভূতি হয়ে থাকবে। স্পষ্ট মনে হলো, সামরিক বাহিনীর এই মুখপাত্র গণমাধ্যমকে ব্যবহারের সময় পুরো দেশবাসীকে গাধা সাব্যস্ত করেছেন। অনেক পুরনো একটা কথা সাধারণের মাঝে চালু আছে, “প্যারেড করতে করতে নাকি অনেকের বুদ্ধিশুদ্ধি হাটুতে নেমে যায়” কথাটি এতদিন বিশ্বাস করিনি, তবে আজ বিশ্বাস করতে ইচ্ছে হয় অন্তত দু’এক জন সেনা কর্মকর্তার ক্ষেত্রে এ প্রবাদটি হয়তো আদৌ মিথ্যে নয়, যাদের আবোল তাবোল বক্তব্যে পুরো সেনাবাহিনীর সাথে দেশবাসীও বিব্রত হয়। Continue reading “সেনা অভ্যুত্থান : ব্যর্থ নাকি সফল!”