ভোটারদের আতঙ্কিত করতেই কি গ্রেফতার সাকা চৌধুরী?

সর্বশেষ সংবাদ : অবশেষে রাত সোয়া ১২টায় আবার মুক্ত সাকা।
হঠাৎ করেই গ্রেফতার হলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও জাতীয় সংসদ সদস্য সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ওরফে সাকা চৌধুরী। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন শুরু হবে আর অল্প কয়েক ঘন্টা পরেই অথচ এমন একটি নাজুক মুহুর্তে বাকলিয়া থানা পুলিশ আটক করে তাকে। বাকলিয়ার মান্নান সওদাগরের বাড়িতে দাওয়াত খেয়ে গুডস হিলের নিজ বাসায় যাওয়ার পথে বিকেল সোয়া পাঁচটায় চট্টগ্রামের বাকলিয়া থানার কালামিয়া বাজার এলাকায় সাকাচৌধুরীর গাড়ীর গতিরোধ করে আটক করা হয়। পুলিশের অভিযোগ সাকা চৌধুরী নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে গাড়ি বহর নিয়ে ঘোরাঘুরি করেছেন, যদিও তিনি তার গাড়ীর সাথে চলা সব গাড়ী তার নয় বলে দাবী করেন। উল্লেখ্য পুলিশ ৪টি গাড়ী থামানোর চেষ্টাকালে ২টি চলে যেতে সক্ষম হয়। অথচ নির্বাচনী আচরণবিধি লংঘনের কথা বলা হলেও এখন গ্রেফতার দেখানো হচ্ছে নির্বাচন কমিশনের ভিন্ন মামলায়। তার গ্রেফতারের খরর দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে বাকলিয়া থানায় বিএনপির সাংসদ জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন, চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের নেতাবৃন্দসহ হাজার হাজার নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষ ভিড় করে। ৩ ঘণ্টা ১০ মিনিট পর রাত ৮টা ২৫ মিনিটে সাকা চৌধুরীকে এবকার ছেড়ে দেয়া হলেও আবার রাত ৮টা ৩৫ মিনিটে তাকে আটক করা হয়। Continue reading “ভোটারদের আতঙ্কিত করতেই কি গ্রেফতার সাকা চৌধুরী?”