দূয়ারে রক্ষীবাহিনী

ভাবতে অবাক লাগে এ কোন আজব দেশে বাস আমাদের। যেন দু:স্বপ্নের মাঝে বিচরণ। যে দেশে প্রতিদিন ১০ জন মানুষ প্রাণ হারায় সন্ত্রাসীদের অত্যাচারে, দিনে ৩ জন নারী হারান সম্ভ্রম, যার এক তৃতীয়াংশই শিশু, যে দেশে দিনে গড়ে গণধর্ষণের শিকার হয় ১ জন করে নারী, সে কেমন ডিজিটাল বাংলাদেশ। জাতীয় দৈনিকের সংবাদের ভিত্তিতে সেন্টার ফর মিডিয়া রিসার্চ অ্যান্ড ট্রেনিংয়ের (এমআরটি) গবেষণায় ২০১০ সালের মে মাসের প্রথম ১৫ দিনে সংঘটিত বিভিন্ন অপরাধের পরিসংখ্যানের প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। গবেষণা মতে ১-১৫ মে পর্যন্ত শুধু খুনের ঘটনা ঘটেছে ১৫১টি, যা প্রতিদিন গড়ে ১০ জনেরও বেশি। এ ছাড়া আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার হাতে মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের। আত্মহত্যা করেছে ২০ জন। আর ধর্ষণের শিকার হয়েছে ১০ শিশুসহ ৪২ জন। যার মধ্যে ১৪ জন গণধর্ষণের শিকার। আর বলাই বাহুল্য এগুলো শুধু পত্রিকার হিসেব, প্রকৃত অনেক অপরাধই থেকে যায় মিডিয়ার আড়ালে, অনেকেই কিল খেয়ে কিল হজম করে ফেলেন, লোকলজ্জার ভয়ে যৌন নির্যাতনের শিকার হয়ে মুখ বুজে সয়ে যায় সবকিছু। সেসব অজানা সত্যগুলো প্রকাশিত হলে পরিসংখ্যান যে কত ভয়াবহ হতে পারে তা সহজেই অনুমেয়। সবকিছু অন্তত এটুকু স্পষ্ট করে যে দেশে আর যাই থাকুক না কেন, আইন-শৃংখলা বলে কিছু নেই। দিন বদলের অলীক স্বপ্নে বিভোর করে যে সরকার গঠিত হয়েছিল তারা দিন বদলে সুদিন আনতে পারে নি, দিন বদলে নেমেছে কাল রাত্রি। Continue reading “দূয়ারে রক্ষীবাহিনী”