নানা রঙের দিনগুলি (এক)

ক্লাস ওয়ানে বছরের একেবারে শেষ দিকে ভর্তি হলাম। সে এক স্বপ্নের দিন। বাবার হাত ধরে স্কুলে ঢুকে আমি অবাক। এতো ছেলে মেয়ে, এতো হৈ-চৈ, এতো আনন্দ দেখে আমার প্রাণটা খুশিতে ময়ুরের মতো পেখম মেলে নেচে ওঠে।

ক্লাস টিচার নীনা আপা আমার বাবারই ছাত্রী, তাই ক্লাসে ঢুকতেই তিনি আমাকে কোলে তুলে নিয়ে আদর করলেন। আমি মুগ্ধ, মুহূর্তেই আপাকে ভালোবেসে ফেলি। আজো মনে পড়ে, আমার ভাইবোনের সংখ্যা জিজ্ঞেস করলে নীনা আপাকেও পরিবারের একজন হিসেবে গুণতাম, যদিও বড়রা মুখটিপে হাসাহাসি করতো। Continue reading “নানা রঙের দিনগুলি (এক)”

পুরস্কারটা হাতছাড়া হয়ে গেল

মাধবীর ফোন পেয়ে হোন্ডায় ইউটার্ন নিলাম।
ট্রাফিক পুলিশকে পরোয়া করার সময় এটা নয়, আর পুলিশ যদি গতিরোধই করে তবে পুলিশের উদ্যত ফনার সামনে সাংবাদিক কার্ড নামের রক্ষাকবজটি ছুইয়ে দিলেই ল্যাটা চুকে যাবে।
স্পটের কাছাকাছি আসতেই চোখে পড়লো কালো ধোয়ার কুন্ডলী পাক খেয়ে খেয়ে ঢাকার বিষাক্ত বাতাসে ছড়িয়ে পড়ছে। Continue reading “পুরস্কারটা হাতছাড়া হয়ে গেল”