ক্ষমা করে ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করলেন রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান

একজন খুনি! তার পরিচয় একটাই, খুনী! আইনের দৃষ্টিতে সে কারো সন্তান নয়, নয় কারো পিতা, ভাই, আত্মীয়-স্বজন! আইনের দৃষ্টিতে তার একটাই পরিচয়, সে খুনি। তবে, খুনের কিছু ধরণ আছে, কেউ হিতাহিত জ্ঞানশূন্য হয়ে খুন করে বসে, আবার কেউ কেউ ঠান্ডা মাথায় পরিকল্পনা করে খুন করে। আবার রসূ খাঁর মতো কেউ কেউ ভয়ংকর সিরিয়াল কিলার, খুনই যাদের একমাত্র পেশা, খুনই যাদের অতৃপ্ত নেশা। সব খুন যেমন সমান নয়, সব খুনের বিচারও অনেক সময় এক রকম হয় না। তবে খুন করে কেউ আইনের হাত থেকে বেঁচে যাক তা কারো কাম্য নয়।  কারন নরহত্যা অথবা পৃথিবীতে বিপর্যয় সৃষ্টি করা ছাড়া অন্য কোন কারণে যে ব্যক্তি কাউকে হত্যা করে সে যেন দুনিয়ার সমস্ত মানুষকে হত্যা করে।  কিন্তু খুনী সে যত বড় অপরাধীই হোক না কেন তার চেয়েও বড় অপরাধী যে ঠান্ডা মাথায় ন্যায় বিচারকে হত্যা করে, খুনীদেরকে মুক্তি দেয় আর নিরপরাধ মানুষদের উপর চালায় পৈশাচিক নির্যাতন। আর তাই, একজন মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত খুনের আসামীকে দলীয় স্বার্থে দয়াপরবশ হয়ে ক্ষমা করে দিয়ে রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করেছেন। তার এ মহানুভবতায় মানবাধিকার ভূলুন্ঠিত হয়েছে, অসত্যের জয় হয়েছে, অপশক্তির জয় হয়েছে। Continue reading “ক্ষমা করে ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করলেন রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান”

চাটুকারের তেলে পিছলে যায় আওয়ামী মসনদ

আওয়ামী লীগ দলের যেমন রয়েছে সাফল্যের ইতিহাস তেমন রয়েছে উচ্চ পদস্থ চাটুকারদে তেলে ক্ষমতা থেকে পিছলে পড়ার লজ্জাজনক ইতিহাস। আগের শাসনামলে তৈল মর্দনে বিশেষ পারদর্শিতা অজর্নের জন্য জিল্লুর তেল শব্দটি মিডিয়ায় ব্যাপক প্রচার পেয়েছিল, আওয়ামী লীগের ভরাডুবির জন্য অমন তৈলমর্দন অন্যতম কারণ হয়েছিল। উত্থান-পতনের খেলায় আওয়ামী লীগ আবারও সরকার গঠন করেছে। শক্তিশালী রাজনৈতিক দল হিসেব খুব দ্রুতই এ দলটি তাদের অবস্থানকে সুসংহত করতে পারে, তাই আবার ক্ষমতায় যেতে খুব বেশী দেরী করতে হয় নি। ক্ষমতায় এসেই আওয়ামী লীগ অতীতের যত মধুর ভুলগুলিকে স্মরণ করেছে, সম্মানিত করেছে। তৈল মর্দনকারীরা তাই আজ দেশের সর্বোচ্চ সম্মানে ভূষিত হয়েছেন।

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে ভালো কিছু করার উদ্যেগ যে নেয় নি তা নয় বরং বলতেই হবে যে সকল সরকারই অনেক ভালো ভালো কাজের উদ্যোগ নেয়, আর আওয়ামী লীগ তার ব্যতিক্রম নয়। তবে ব্যতিক্রম এখানেই যে, আওয়ামী লীগ যথনই কোন সিদ্ধান্ত নেয় তখন তৈলমর্দনকারীরা ড্রামে ড্রামে তৈল ঢালতে থাকে নীতি নীর্ধারকদে পায়ে, ফলে টলে যায় পরিকল্পনা, ভূপতিত হয় উন্নয়ন। Continue reading “চাটুকারের তেলে পিছলে যায় আওয়ামী মসনদ”