আস্থার মিনার ভেঙ্গে ভেঙ্গে যায়

আস্থার মিনারগুলো একে একে ভেঙ্গে ভেঙ্গে যায়। অর্থ আর প্রতিপত্তির পাহাড়ে চাপা পড়ে ছটফটিয়ে মরে বিশ্বাস। বিশ্বাস যেন শুধু বিশ্বাসঘাতকতারই হাতিয়ার। কারো প্রতি কোন দায়বদ্ধতা নেই, নেই মানবতা, নেই ভালোবাসা, চারিদিকে শুধুই স্বার্থপরতার দূর্ভেদ্য দেয়াল।
এমন মা-বাবা কজন আছেন যারা সন্তানকে নিয়ে সুখস্বপ্নের জাল বোনেন না। বাবা-মা স্বপ্ন দেখেন নামকরা ভবিষ্যত ডাক্তারের, গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে ছড়িয়ে আছে যার সুনাম, যার মিষ্টি মুখের দর্শনে অনেকটাই সুস্থবোধ করে মৃত্যুপথযাত্রী কোমার রোগী।
হ্যা, এমন একটা দিন ছিল যখন ডাক্তারি পেশাকে সম্মানের চোখে দেখা হতো, ডাক্তারের সামনে শ্রদ্ধায় প্রাণ বিগলিত হতো, ইশ্বরের দূত হিসেবেই অনেকে জ্ঞান করতেন ডাক্তার সমাজকে। অথচ আজ ডাক্তার শব্দের সাথে শ্রদ্ধার যেন প্রচন্ড বিরোধ, ডাক্তার শব্দের পাশে বিশেষণ হিসেবে স্থান করে নিয়েছে অমানুষ, কসাই, ডাকাত, রক্তচোষা প্রভৃতি ভয়ংকর শব্দ।
মাঝে মাঝেই সংবাদ বেরোয় অপারেশন শেষে গজ, তুলো, ছুড়ি, কাঁচি পেটের ভেতর রেখেই সেলাই করে দিচ্ছে অসতর্ক ডাক্তার, দীর্ঘদিন মৃত্যুযন্ত্রণায় ভুগে হয়তো এক্সরেতে ধরা পরে পেটের মাঝে লুকিয়ে থাকা কাচির অস্তিত্ব। নিস্তার মেলে না রোগীর, প্রচন্ড অবিশ্বাস আর উদ্বেগ নিয়ে পেটটি আবারো সমর্পন করতে হয় অন্য কোন ডাক্তারের ছুড়ির কাছে। Continue reading “আস্থার মিনার ভেঙ্গে ভেঙ্গে যায়”