গণতন্ত্রের পথ রুদ্ধ হলে গণজাগরণেই সমাধান

রাজনৈতিক শিষ্ঠাচারকে পদদলিত করে অসভ্যতার চরম দৃষ্টান্ত স্থাপন করে আজ ২৮ জানুয়ারী ২০১২ তারিখে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বিশ্ববাসীকে দেখিয়ে দিল তারা গণতন্ত্র নয়, কেবলমাত্র বাকশালেই বিশ্বাসী। দীর্ঘ দু’ সপ্তাহ আগে গত ১০ জানুয়ারী চট্টগ্রাম পলো গ্রাউন্ডে ঘোষিত ২৯ জানুয়ারি বিভাগ জেলায় গণমিছিল চরম স্বৈরতান্ত্রিক পদ্ধতিতে বাতিল করার ব্যর্থ চেষ্টা চালালো সরকার। বিএনপির গণমিছিলের পাল্টা জনসভা ডেকে শেখ হাসিনা গায়ে পরে ঝগড়া করার হীন চেষ্টা চালিয়েছেন, ডিএমপির পক্ষ থেকে সকল মিছিল মিটিং সমাবেশ, মানবন্ধন নিষিদ্ধ করেছে, তবে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া সুকৌশলে বাকশালের বাড়িয়ে দেয়া নোংরা ঠ্যাং এড়িয়ে সম্ভাব্য সংঘাতের হাত থেকে বাংলাদেশকে রক্ষা করেছেন। রবিবারের ঢাকার গণমিছিলকে একদিন পিছিয়ে ৩০ তারিখে করার ঘোষণা দিয়েছেন। শেখ হাসিনা এখন কি করবেন? ৩০ তারিখেও কি তিনি জনসভার ডাক দেবেন? আর কত লম্বা করে দেখাবেন তার অপুষ্ট নোংরা পা?

খালেদা জিয়া অস্থির রাজনীতির বাংলাদেশে যে চরমধৈর্যশীলতার পরিচয় দিলেন, যেভাবে বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের একটি সরকারী ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করে দিলেন তাতে আগামী দিনের গণবিপ্লবের জন্য যে যোগ্য নেতৃত্বের প্রয়োজন তার অগ্নিপরীক্ষায় তিনি কৃতিত্বের সাথে পাশ করে গেলেন। তবে মনে রাখা প্রয়োজন সরকার একের পর এক গণতান্ত্রিক সকল পথ যেভাবে রুদ্ধ করে দিচ্ছে, মানুষের বাক স্বাধীনতা, মানবাধিকার, বেঁচে থাকার অধিকার, খাদ্য-বস্ত্র-বাসস্থান কেঁড়ে নিচ্ছে, যেভাবে বাংলাদেশকে ঠেলে দিচ্ছে অন্ধকার ভবিষ্যতে সেখানে গণবিপ্লবের মাধ্যমে বাকশালের শেকড় উপড়ে ফেলার কোন বিকল্প নেই। মনে রাখা দরকার শত্রু যদি অস্ত্র হাতে যুদ্ধে নামে, সত্যভাষণে তাকে রুদ্ধ করার চেষ্টা বৃথা। গণতন্ত্রকে কামড়িয়ে ছিন্নভিন্ন করে যদি কেউ  আতঙ্ক  ছড়াতে চায় তবে তাকে আদর সোহাগ করে মিষ্টি মিষ্টি কথায় বশে আনার চেষ্টা বৃথা, যথোপযুক্ত মুগুড়ে ঠান্ডা করাই নিরাপদ । আওয়ামী লীগ আজ বুনো ষাড়ের চেয়েও ভয়ংকর, শেখ হাসিনার শরীরজুড়ে কুষ্ঠরোগীর মতো ফুঁটে  উঠেছে ভয়ংকর বাকশালের অশুভ আলামত, আরো বিভৎস্যরূপে, পচাত্তরের চেয়েও ভয়াল হিংস্রতায়। বাকশাল প্রতিরোধে জেগে উঠেছে দেশ, প্রয়োজন একটি সুনিয়ন্ত্রিত গণঅভ্যুত্থান। বাকশাল বধে চাই আরেকটি তাহরীর স্কয়ার।

Be Sociable, Share!

এ লেখাটি প্রিন্ট করুন এ লেখাটি প্রিন্ট করুন

মন্তব্য করুন