নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়ছেই

লাগামহীনভাবে বেড়েই চলেছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পন্যের দাম। শাক-শব্জি, তেল, ডাল, আটা, চিনিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য পাগলা ঘোড়ার মতো লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে।

শুক্রবারের বাজার দরঃ চাল-মিনিকেট পাইকারি ৫১-৫২ টাকা, খুচরা ৫৩-৫৪ টাকা, পারি পাইকারি ৪০-৪১ টাকা, খুচরা ৪২-৪৩ টাকা, বি আর (২৮) পাইকারি ৪২-৪৮ টাকা, খুচরা ৪৯-৫০ টাকা, নাজির পাইকারি ৪৪-৪৮ টাকা, খুচরা ৪৯-৫২ টাকা, স্বর্ণা পাইকারি ৩৫-৩৬ টাকা, খুচরা ৩৭-৩৮ টাকা, লাল স্বর্ণা পাইকারি ৩৬ টাকা, খুচরা ৩৭ টাকা, হাসকি পাইকারি ৩৫-৩৬ টাকা, খুচরা ৩৭-৩৮ টাকা, পোলাও চাল ৬৫-৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আটা ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা, প্যাকেট ২ কেজি ৭২ টাকা, ময়দা ৪২-৪৪ টাকা, ২ কেজি প্যাকেট ৮৮-৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মসুর ডাল দেশি ১১৫-১২০ টাকা, ক্যাঙ্গারু ১১০-১১৫ টাকা, মোটা দানা ৮০-৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

খোলা সয়াবিন প্রতি লিটার ১১৫-১১৭ টাকায়, বোতলজাত (৯শ গ্রাম) ১০৫ থেকে ১২০ টাকা এবং ৫ লিটার বোতল ৫৭০-৫৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে যদিও আন্তর্জাতিক বাজারে ভোজ্য তেলের দাম কমেছে।

গত সপ্তাহের তুলনায় সবজির দাম ১০-১৫ টাকা বেড়েছে। প্রতি কেজি করল্লা বিক্রি হচ্ছে ৯০-১০০ টাকা এবং ঢেঁড়স ৫০-৬০ টাকায়। শিম ৩৫-৪০ টাকা, মুলা ১৫ টাকা, গোল বেগুন ৩০-৩৫ টাকা, ধুনদল ৩৫ টাকা, পটল ৩০ টাকা, গাজর ২০-২৫ টাকা, ফুলকফি ২০ টাকা, পাতাকফি ১৫ টাকা, মরিচ ৪০ টাকা, টমেটো ৩৫-৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

গত সপ্তাহের তুলনায় ব্রয়লার মুরগির দাম বেড়ে প্রতি কেজি ১৩০ টাকা, দেশি মুরগি ৩০০-৩২০ টাকা, গরুর মাংস প্রতি কেজি ২৬০-২৭০ টাকা, খাসি ৪০০-৪৫০ টাকা। রুই মাছ প্রতি কেজি ১৯০-২২০ টাকা, ইলিশ মাছ প্রতি কেজি ৪শ থেকে ৪শ ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মসলার মধ্যে দেশি আদা প্রতি কেজি ৯০-১০০ টাকা, (চায়না) ৫২-৬০ টাকা, রসুন ১৬০- ১৮০ টাকা, পেঁয়াজ ২০-২৫ টাকা, শুকনা মরিচ ২০০-২৩০ টাকা, হলুদ ২৮০-২৯০ টাকা। সোর্সঃ শীর্ষনিউজ ডটকম

Be Sociable, Share!

এ লেখাটি প্রিন্ট করুন এ লেখাটি প্রিন্ট করুন

মন্তব্য করুন