নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়ছেই

ঢাকা, ৭ জানুয়ারি, (শীর্ষ নিউজ ডটকম): চাল, ডাল ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সীমিত আয়ের মানুষ দিশেহারা। বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে হিমশিম খাচ্ছে সরকার। এক সপ্তাহের ব্যবধানে ভালো মানের চাল কেজিতে ৩-৪ টাকা বেড়ে ৪৮ থেকে ৫৫ টাকায় আর মোটা চাল ৩৫-৩৭ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। চালের দাম বাড়ার কারনে ওএমএস এ চালের চাহিদা বেড়ে গেছে। চালের পরিমাণ কম হওয়ায় লাইনে দাড়িয়েও চাল না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে অনেকে। অন্যদিকে বাজারে নতুন পেয়াজ পাওয়া যাচ্ছে ৫০ টাকায়। ভারতীয় পেয়াজ আমদানী না হওয়ায় সহসা পেয়াজের দাম কমছে না বলে জানিয়েছে কারওয়ান বাজারের পেয়াজ ব্যসায়ীরা। চাল ছাড়াও এ সপ্তাহে বেড়েছে , ডাল, চিনি, আটা, ময়দা, বেগুন, ঢেড়শের দাম।
পণ্যতালিকা: রাজধানীর কারওয়ান বাজারে চাল মিনিকেট পাইকারি ৪৬-৪৭ টাকা, খুচরা ৪৮- ৫০ টাকা; পাইজম পাইকারি ৩৬-৩৮ টাকা, খুচরা ৪০-৪২ টাকা; লতা পাইকারি ৪০-৪৪ টাকা, খুচরা ৪৫-৪৬ টাকা, পারি পাইকারি ৪০-৪২ টাকা, খুচরা ৪৩-৪৪ টাকা; নাজির পাইকারি ৪৪-৪৫টাকা, খুচরা ৪৭-৪৮ টাকা; স্বর্ণা পাইকারি ৩৬-৩৭ টাকা, খুচরা ৩৮-৩৯ টাকা; হাসকি পাইকারি ৩৬-৩৭ টাকা, খুচরা ৩৮-৩৯ টাকা; মোটাচাল পাইকারি ৩৪-৩৫ টাকা, খুচরা ৩৬-৩৭ টাকা। মসলার মধ্যে দেশি আদা প্রতিকেজি ১শ ৫০ (পুরাতন) টাকা, নতুন ১শ টাকা, ভালো মানের রসুন ২শ টাকা, সাধারণ মানের ১শ ৩০ থেকে ১শ ৪০ টাকা, মশুর ডাল ১শ ১৪ টাকা, শুকনা মরিচ ১শ ৭০ থেকে ১শ ৮০ টাকা, হলুদ ৩শ ২০ টাকা, ছোলা ৪৫ টাকা, সরিষার তেল প্রতি লিটার ১শ ৭০ টাকা, চিনি ৫৮-৬০ টাকা, জিরা প্রতি কেজি ৪শ টাকা, এলাচ ২৯শ টাকা, মোটাদানার এলাচ ৩ হাজার টাকা; দারচিনি ২শ ২০ টাকা, আটা (২ কেজি) প্যাকেট ৭২ টাকা। ফুলকপি ৩০-৩৫ টাকা, পাতাকপি ২০-২৫ টাকা, পেঁপে ১০ টাকা, শসা ২৫ টাকা, আলু ১৫ টাকা, সিম ৩৫-৪০ টাকা, মূলা ১৮ টাকা, গোল বেগুন ৩৫-৪০ টাকা, মরিচ ৪০ টাকা, টমেটো ৫০ টাকা, করোল্লা ৫০ টাকা, বরবটি ৫০ টাকা, ঢেড়স ৪৫ টাকা, চিচিংঙ্গা ৫০ টাকা। ব্রয়লার মুরগি প্রতি কেজি ১শ ১০ থেকে ১শ ১৫ টাকা, দেশি মুরগি ২শ-২শ ২০ টাকা, গরুর মাংস প্রতি কেজি ২৪০-২৬০ টাকা, খাসি ৩শ ৭০ থেকে ৪শ টাকা, রুই প্রতি কেজি ২শ থেকে ২ শ ২০ টাকা, ইলিশ প্রতি কেজি ৪শ ৭৫ থেকে ৫শ টাকা।

Be Sociable, Share!

এ লেখাটি প্রিন্ট করুন এ লেখাটি প্রিন্ট করুন

মন্তব্য করুন