সাকা চৌধুরীকে নির্যাতনের অভিযোগ : ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

গ্রেপ্তারের পর সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ওপর নির্যাতন চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তার স্ত্রী ফরহাত কাদের চৌধুরী। সাকা চৌধুরীর মেয়ে ফারযিদ কাদের চৌধুরী অভিযোগ করেন “তার প্রতিটি পায়ের নখ ছিড়ে ফেলা হয়েছে, কান থেকে রক্ত বেরোচ্ছে, মাথায় এত জোরে আঘাত দেয়া হয়েছে যে দাড়াতে পারছেন না।” এদিকে মগবাজারের গাড়ি পোড়ানো ও ফারুক হোসেন হত্যামামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে ১০ দিনের রিমান্ডের নেয়ার আবেদন করলে আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। ফরহাত কাদের চৌধুরীর আশঙ্কা, সালাউদ্দিন কাদেরকে রিমান্ডে নিয়ে আবার নির্যাতন করা হবে। গ্রেফতারের পর আদালতে সাকা চৌধুরীকে অসুস্থ্য ও দূর্বল দেখা গেছে, হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে বেরিয়ে আসার সময় তার নাক-মুখ ও শার্টে রক্তের চিহ্ন ছিল স্পষ্ট। এদিকে সাকা চৌধুরীর গ্রেফতারে আদালত প্রাঙ্গনে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। সাংসদ শাম্মী আক্তারসহ বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে পরে শাম্মী আক্তারকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

বেলা পৌঁনে ৩টার দিকে দুই গোয়েন্দা ইন্সপেক্টরের কাঁধে ভর দিয়ে কড়া পুলিশি প্রহরায় তাকে ঢাকা মূখ্য মহানগর হাকিম নজরুল ইসলামের আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে কথা বলার সময় বিমর্ষ দেখাচ্ছিলো। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী আদালতে বলেছেন, যদি শেখ মুজিবুর রহমান বেঁচে থাকতেন তাহলে আমাকে এ নির্মম নির্যাতনের শিকার হতে হতো না। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হয়তো জানেন না আমার ওপর কি রকম নির্যাতন চালানো হয়েছে। ‘আপনার কাছে আমি আর কি বিচার চাইবো। এর বিচার আমি মহান আল্লাহর কাছে দিলাম’। মানুষ ভালোবাসে বলেই বারবার তারা আমাকে নির্বাচিত করে সংসদে পাঠিয়েছে।

মগবাজারে গাড়ী পোড়ানোর মামলায় গ্রেফতার দেখানো হলেও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন দাবী করেছেন যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে আটকের জন্য আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে আবেদনের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বৃহস্পতিবার ভোররাতে বনানীর একটি বাড়িতে গ্রেপ্তার হন সংসদ সদস্য সালাউদ্দিন কাদের।

সকাল সাড়ে ১০টায় ডিবি কার্যালয়ের সামনে ফরহাত কাদের সাংবাদিকদের বলেন, “বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসকরা আমাকে জানিয়েছেন, তার (সালাউদ্দিন) মুখের ডান দিক ফুলে গেছে। বাম বুকের কাছে জামায় রক্ত ছিলো। বুকে তার প্রচণ্ড ব্যথা। এভাবে নির্যাতন করা হয়েছে আমার স্বামীকে।”  স্বামীর চিকিৎসায় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, “পুলিশি হেফাজতে এভাবে নির্যাতন করা হয়েছে। একজন সংসদ সদস্য ও রাজনীতিবিদের প্রতি এটা অবমাননাকর। আমরা এখন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।”

সাকা চৌধুরীকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে বন্দর নগরী চট্টগ্রামে আগামী রবিবার দুপুর ২ টা পর্যন্ত আধাবেলা হরতাল ডেকেছে বন্দর বিএনপি।

Be Sociable, Share!

এ লেখাটি প্রিন্ট করুন এ লেখাটি প্রিন্ট করুন

মন্তব্য করুন